ওরে লুটেরার দল
কবি: জাহাঙ্গীর বিশ্বাস
———– ———–

ওরে লুটেরার দল!
মায়ের কলিজা ছিন্ন করিয়া কত আর লুটিবি বল?

কৃষক-শ্রমিক-মজুরের ঘামে
মায়ের ভাড়ারে যে টুকু জমে
সে টুকু তোরা লুটিবার তরে করছিস কত ছল
ওরে লুটেরার দল!

ঝড় ও বন্যার সামান্য ত্রাণ
বাঁচাতে পারে কিছু অসহায় প্রাণ
সেখানেও তোদের লোভের দৃষ্টি বর্ষিছে কোপানল
ওরে লুটেরার দল!

ব্যাংকে ও বীমাতে গচ্ছিত টাকা
লুটে পুটে খেয়ে তোরা করছিস ফাঁকা
বিদেশে অর্থ পাচার করিয়া দেশেকে করছিস দূর্বল
ওরে লুটেরার দল!

বাংলার খাল-বিল, বন-জঙ্গল
দিনে দিনে সবই তোরা নিয়েছিস দখল
ব্যাথা ভরা বুকে মা যে দেখিছে সকল
ওরে লুটেরার দল!

বিদেশে খেটে মরে দেশের শ্রমিক
জীবন কাটে তাঁদের অতি অমানবিক
শ্রমিকের অর্থ ভক্ষণ করিয়া পেয়েছিস অসুরের বল
ওরে লুটেরার দল!

তোরা দেশ খেকো সকলে তা জানে
আতংকে ও ভয়ে সবই যায় মেনে
গলাবাজি তোরা যতই করিস তোরা যে ভন্ডের দল
ওরে লুটেরার দল!

যতই করিস তীর্থ সফর
চুমিস যতই বড় কালা পাথর
গরীবের গ্রাস ভক্ষণ করিয়া পাবিনে কি তার ফল?
ওরে লুটেরার দল!

মানুষ যখন উঠিবে জাগিয়া
ধরিবে তোদের কন্ঠ চাপিয়া
পালাবার পথ পাবি কি খুঁজিয়া? একটু ভাবিয়া বল
ওরে লুটেরার দল!

ওরে লুটেরার দল!
দেশের এ বুক ছিন্ন করিয়া কত আর লুটিবি বল?