ক্যালিফোর্নিয়া স্টেট আওয়ামী যুবলীগের সভাপতি সুবর্ণ নন্দী তাপস বলেছেন, ‘যুক্তরাষ্ট্রের জনগণের রায়ের বিরুদ্ধে গিয়ে ট্রাম্পের পক্ষে জোর করে ক্ষমতায় থাকা সম্ভব না। এটা নিশ্চিত যে আগামী বছরের শুরুতে জো বাইডেনই ক্ষমতা গ্রহণ করতে যাচ্ছেন।’

রোববার (১৫ নভেম্বর) সমসাময়িক বিষয় নিয়ে বীর বাঙালির ফেসবুক ভিত্তিক লাইভ অনুষ্ঠান ‘আসল কথা’য় তিনি এসব কথা বলেন। অনুষ্ঠানটি উপস্থাপনা করেন সজিব খান।

নির্বাচনে ডেমোক্র্যাটিক পার্টির প্রার্থী জো বাইডেন জয়ী হলেও পরাজয় স্বীকার করছেন না রিপাবলিকান পার্টির প্রার্থী ডোনাল্ড ট্রাম্প। স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী মাইক পম্পেও বলেছেন, ‘দ্বিতীয়বারের মতো ট্রাম্প প্রশাসনের হাতেই ক্ষমতা থাকবে।’ এ ক্ষেত্রে ট্রাম্পের দ্বিতীয়বার ক্ষমতায় থাকার সুযোগ আছে কিনা?

এমন প্রশ্নের জবাবে সুবর্ণ নন্দী তাপস বলেন, ‘আসলে এটা একটা গণতান্ত্রিক দেশের জন্য খুবই দুঃখজনক। বিগত দিনে এমন দেখা যায়নি যে, নির্বাচনের মাধ্যমে কেউ বিজয়ী হলে তাকে এতোটা দেড়ি করে বিজয়ী ঘোষণা করা। এটা আসলে কোনোভাবেই সম্ভব না। ট্রাম্প অনেক কথা বলছেন। কিন্তু সেগুলো যুক্তরাষ্ট্রের জনগণ কিভাবে গ্রহণ করবে- সেটা একটা বিষয়। আরেকটা বিষয় হচ্ছে- এভাবে জনগণের রায়ের বিরুদ্ধে গিয়ে জোর করে ক্ষমতায় থাকা সম্ভব না। উনি (ডোনাল্ড ট্রাম্প) হয়তো বা এটা বিলম্ব করে ৪৫ প্রেসিডেন্ট হিসেবে উনার নিজের যে সুনাম সেটা অনেকটাই নষ্ট করছেন। কিন্তু আমি মনে করি উনি শেষ পর‌্যন্ত সেটা করতে পারবেন না।’

তিনি আরও বলেন, ‘ডোনাল্ড ট্রাম্প পাঁচটি অঙ্গরাজ্যে নির্বাচনে ভোট জালিয়াতির যে অভিযোগ এনেছেন সেগুলো কোনো আদালতেই গ্রহণ যোগ্য নয়। আরেকটা ব্যাপার হলো আগামী ১৪ ডিসেম্বর নতুন সরকারের যে ইলেকটোরাল সদস্য, তার একটি সভা রয়েছে। সেখানেই হয়তো উনি নতুন প্রেসিডেন্টকে বিজয়ী বা শুভেচ্ছা জানাবেন এটাই আমাদের আশা।’

‘প্রতিরক্ষা মন্ত্রী মার্ক এস্পারসহ বিভিন্ন কর্মকর্তাদের উনি বহিষ্কার করেছেন। যারা উনার নিজের দলের লোক ছিলো। এগুলো করে উনি পৃথিবীর সর্বোচ্চ গণতান্ত্রিক দেশটাকে প্রশ্নবিদ্ধ করছেন। যদি ক্ষমতা হস্তান্তর বিলম্ব হয় জো বাইডেন শেষ পর‌্যন্ত আইনের আশ্রয় নেবেন।’- যোগ করেন তাপস।

তিনি আরও বলেন, ‘সাধারণত আমেরিকার নিরাপত্তা বাহিনী কেউ বিজয়ী ঘোষণা হওয়ার পর ২০শে জানুয়ারী নতুন প্রেসিডেন্টকে ক্ষমতা হস্তান্তর করার যে অনুষ্ঠান, সেটার কার‌্যক্রম শুরু হওয়ার কথা ছিলো। যদিও বাইডেন তার নিজস্ব চেষ্টায় ও দলীয়ভাবে সেটা করে যাচ্ছেন। কিন্তু সরকারীভাবে এটা বিলম্ব করা হচ্ছে। বিষয়টি আমেরিকার জনগণ ভালোভাবে নিচ্ছে না। এটা ঠিক নয় এবং এটা হবে না। এটা নিশ্চিত যে আগামী বছরের শুরুতেই জো বাইডেন যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্টের দায়িত্ব গ্রহণ করবেন।’

পুরো অনুষ্ঠানটি দেখতে ক্লিক করুন-