জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের আত্মস্বীকৃত চার খুনির মুক্তিযোদ্ধা খেতাব ও সনদ বাতিলের সিদ্ধান্ত নিয়েছে জাতীয় মুক্তিযোদ্ধা কাউন্সিল। একইসঙ্গে জিয়াউর রহমান ও খন্দকার মোশতাক আহমেদসহ বিতর্কিতদের মুক্তিযুদ্ধের সময় ভূমিকা খতিয়ে দেখতে একটি কমিটি গঠন করা হয়েছে।

বঙ্গবন্ধুর চার খুনি হলেন— শরিফুল হক ডালিম, এস এইচ এম বি নুর চৌধুরী, এ এম রাশেদ চৌধুরী ও মোসলেহ উদ্দিন ওরফে মুসলেম উদ্দিন ওরফে হিরন খান ওরফে মুসলেম উদ্দিন খান।

চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নিতে জামুকার প্রস্তাবনা মুক্তিযুদ্ধ মন্ত্রণালয়ে পাঠানো হবে বলে জানিয়েছেন জামুকার মহাপরিচালক জহুরুল ইসলাম।

তিনি জানান, আগামী ২৬ মার্চ স্বাধীনতা দিবসে মুক্তিযোদ্ধাদের তালিকা প্রকাশের লক্ষ্যে মুক্তিযোদ্ধা যাচাই-বাছাই প্রতিবেদন আগামী ২৪ ঘণ্টার মধ্যে কেন্দ্রে পাঠানোর নির্দেশ দিয়েছে জামুকা।

মুক্তিযোদ্ধা সনদ নিয়ে প্রশ্ন ওঠায় যাচাই–বাছাইয়ের সিদ্ধান্ত নেয় জামুকা। এরপর চলতি বছরের জানুয়ারি-ফেব্রুয়ারিতে দু’দফা যাচাই-বাছাই করে ২ হাজার ৮৩৪ জনের নাম বাদ দেওয়ার সুপারিশ এলো। যাচাই–বাছাইয়ে ১৬ হাজার ৬৯১ জনের নাম বীর মুক্তিযোদ্ধা হিসেবে অন্তর্ভুক্ত করার সুপারিশ পেয়েছে জামুকা। অন্যদের বিষয়ে এখনো কোনো প্রতিবেদন আসেনি।

দেশের ৩৭৬টি উপজেলায় যাচাই-বাছাইয়ের কাজ শেষ হয়েছে। বাকি আছে এখনো ১১৪ উপজেলা।