ডেস্ক রিপোর্ট:
টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে সাম্প্রতিক ফর্মের বিচারে সেমিফাইনাল তো বটেই, চ্যাম্পিয়ন হওয়ারও সামর্থ্য রাখে টাইগাররা, এমনটাই ক্রিকেট ভক্তরা। কিন্তু বাস্তবে দেখা গেলো উল্টো চিত্র। বিশ্বকাপ খেলতে গিয়ে নিজেদের সামর্থ্যটুকুও দেখাতে পারেননি টাইগাররা।

প্রথমপর্বে স্কটল্যান্ডের মতো দলের কাছে হেরে শুরু। কোনোমতে সুপার টুয়েলভে উঠলেও মূল লড়াইয়ে পাঁচ ম্যাচে একটিতেও জিততে পারেনি বাংলাদেশ। এর মধ্যে শেষ দুই ম্যাচে একশর নিচে অলআউট হয়ে লজ্জার ষোলোকলা পূর্ণ করে এসেছে দল।

বাংলাদেশের এমন পারফরম্যান্স মানতে পারছেন না ক্রিকেট ভক্তরা। মুখ খুলেছেন সাবেক ক্রিকেটারসহ ক্রিকেট বিশ্লেষকরাও। এবার এই তালিকায় যোগ হলেন বিসিবির সাবেক সভাপতি সাবের হোসেন চৌধুরী।

১৯৯৬ থেকে ২০০১ সাল পর্যন্ত বিসিবির সভাপতি ছিলেন সাবের হোসেন। তার সময়েই ২০০০ সালের জুন মাসে বাংলাদেশ আইসিসির পূর্ণ সদস্য পদ এবং টেস্ট স্ট্যাটাস পায়।

বাংলাদেশের ক্রিকেটের উন্নয়ন এবং বিশ্ব ক্রিকেটে অবদানের স্বীকৃতিস্বরূপ ২০০২ সালের অক্টোবর মাসে লন্ডনে মেরিলেবোন ক্রিকেট ক্লাব আজীবন সদস্যপদ প্রদান করে সাবের হোসেনকে।

নিজের টুইটার অ্যাকাউন্টে পাপন ও তার বোর্ডকে রীতিমত ধুয়ে দিয়েছেন তিনি। সাবের হোসেন লিখেছেন, ‘জনাব পাপনের অধীনে বাংলাদেশ ৪টা বিশ্বকাপ খেলে ফেললো। দিনকে দিন অবস্থা খারাপ থেকে আরও খারাপ হয়েছে। সবচেয়ে বেশি সময় ধরে থাকা বিসিবির সভাপতি সবচেয়ে অযোগ্যও বটে। দোষটা সবসময় অন্য কারো হয়, কিন্তু তিনিই আমাদের ক্রিকেটটাকে মাটিতে নামিয়েছেন। লজ্জা লাগে যে আমাদের এমন একটা নির্লজ্জ ক্রিকেট বোর্ড রয়েছে।’