জনপ্রিয় অভিনেত্রী, মডেল, উপস্থাপক ও নৃত্যশিল্পী লারা লোটাস। বর্তমান ব্যস্ততা, ওয়েব সিরিজ ও প্রিয় বিষয়গুলো নিয়ে কথা বলেছেন গণমাধ্যমের সঙ্গে।

বর্তমান ব্যস্ততা…
বর্তমানে ফেসবুক লাইভ অনুষ্ঠান উপস্থাপনা করছি । একটি চ্যানেল আইতে ‘ব্র্যান্ড স্টার’ ও অন্যটি চ্যানেল ৫২ তে ব্যাক স্টেজ উইথ লারা লোটাস । ৬৪ জেলা নিয়ে একটি ট্রাভেল শো করার কথা রয়েছে ।

করোনাকালীন সময়…
একেবারে লকডাউনের প্রথম থেকেই ঘরে ছিলাম। বিভিন্ন ফেসবুক লাইভ প্রোগ্রামে অংশ নিয়েছি । কিছুদিন আগে মহিলা ও শিশু বিষয়ক মন্ত্রণালয় এর একটি সচেতনতামূলক বিজ্ঞাপনে কাজ করলাম । জনপ্রিয় নায়ক সালমান শাহের চলচ্চিত্রের অত্যন্ত জনপ্রিয় একটি গান ‘তোমাকে চাই’ এর কভার সংয়ের মিউজিক ভিডিওতে মডেল হয়েছি । ইতোমধ্যে দারুণ সাড়া পাচ্ছি কাজটি করে ।

মিডিয়ায় আগমন…
নাচের মাধ্যমে মিডিয়ায় আগমন । ছোটবেলা থেকেই চাইতাম নাচ, ছবি আঁকা বা গান আলে সবগুলোই চাইতাম করতে । নাচের ক্লাসে ভর্তি হই। এরপর নিউজ পড়েছি একুশে টিভিতে । এরপর একদিন কাজী ইলিয়াস কল্লোল ভাইয়া বললেন নাটকের জন্য একটি মেয়ে লাগবে । আব্বু-আম্মু কিছুতেই রাজি হলেন না । কল্লোল ভাই তাদের বোঝালেন ও যেহেতু নিউজ পড়ে, খুব সুন্দর করে কথা বলে । এরকম সুন্দর কণ্ঠের কাউকেই এই নাটকে দরকার । এরপর তার এই এক ঘণ্টার নাটক ‘বোধ’ দিয়েই নাটকে যাত্রা শুরু হয় ।

ওয়েব সিরিজ…
রাজু আহসান ভাইয়ের একটি ওয়েব সিরিজে অভিনয় করার কথা চলছে । আর ওয়েব নিয়ে ভাবনা বলতে খুবই বেছে বেছে চরিত্র অনুযায়ী কাজ করতে চাই । আমার ওয়েবটি বা আমার চরিত্রটি যাতে সবাই মিলে দেখতে পারে । আমি এমন দৃশ্যে অভিনয় করব না যেটি আমার আব্বু-আম্মু বা ভাই-বোনেরা দেখতে পারবে না । তবে চরিত্রের প্রয়োজনে যতটুকু প্রয়োজন পরিচালকের নির্দেশনায় আমি শালীনতা বজায় রেখে সে শটগুলো দিতে চাই।

টানিং পয়েন্ট…
আমি লারা লোটাস হয়েছি মূলত অনিমেষ আইচের একটি টেলিফিল্ম ছিল ঈদের যেটি মেরিল-প্রথম আলো ৫ টি অ্যাওয়ার্ড পেয়েছিল এবং এটি এনটিভি যাওয়ার পরে মোস্তফা সৈয়দ কামাল আমাকে বলেছিলেন ও খুব ভালো করবে । ওকে নিয়ে লম্বা একটি সিরিয়াল হবে । সেটিই কিন্তু ‘রমিজের আয়না । এরপর অনিমেষ আইচ দিয়ে আমাকে সবাই চিনে ফেললেন আর শিহাব শাহীন তখন আমাকে কামাল আঙ্কেলের ‘রমিজের আয়না’ সিরিয়ালে নিলেন । আমাকে আর পিছে তাকাতে হয়নি । আমার অভিনয় শেখা শিহাব শাহীনের ঐখানেই আর টার্নিং পয়েন্ট ‘রমিজের আয়না’ । ‘রমিজের আয়না’ করেই আমি লারা লোটাস হয়েছি।

শিক্ষকতা…
একটি স্কুলে শিক্ষকতা করছি । ছোট ছোট বাচ্চাদের পড়াচ্ছি । করোনার জন্য এখন অনলাইনেই ক্লাস নিচ্ছি । খুব উপভোগ করি আমি এই পেশাটি ।

দায়িত্ববোধ…
আমি বিপদগ্রস্ত মানুষের পাশে থাকতে চাই সব সময় সেটা কথা দিয়ে হোক, অর্থ দিয়ে হোক সেটা আমি চেষ্টা করি । তবে এবার দায়িত্ববোধ নিয়েই আলহামদুলিল্লাহ মানুষের পাশে থেকেছি । সেইসাথে বহু মানুষের দোয়াও পেয়েছি ।

শুভেচ্ছাদূত…
আসলে এটা আমার জন্য একটি অনার, একটি বড় সম্মান । ‘ময়ূরপঙ্খী’ একটি বড় সামাজিক সংস্থা । বিগত কয়েক বছর ধরেই সুবিধাবঞ্ছিত মানুষের কল্যাণে, সুন্দর সমাজ বিনির্মাণে কাজ করে যাচ্ছে সংস্থাটি । এমন একটি সংস্থার শুভেচ্ছাদূত হতে পেরে আমি খুবই আনন্দিত হয়েছি এবং সামাজিক কাজে অংশ নেবার একটা সুযোগ পেয়েছি ।

ভবিষ্যৎ পরিকল্পনা..
নতুন নতুন কাজের প্রতি লোভ। সবচেয়ে বড় কথা ভালো একজন মানুষ হতে চাই ।