পুজোতে এবার কেমন ফ্যাশন নিয়ে আসছেন টালিউড অভিনেত্রী ঋতুপর্ণা সেনগুপ্ত, সেই ঝলকই নিয়ে সোশ্যাল মিডিয়ায় আগুন ধরালেন অভিনেত্রী। তবে শাড়িতেই সীমিত রয়েছেন তিনি। শাড়িতেও কীভাবে অসাধারণ সাজে সেজে উঠলেন ঋতুপূর্ণা তাই প্রকাশ পেলো তার সোশ্যাল মিডিয়ায়।

ঋতুপর্ণার বয়স বাড়লেও তার গ্ল্যামারে তা বোঝা মুশকিল। সম্প্রতি এমনই এক ছবি পোস্ট করে ঝড় তুললেন ঋতুপর্ণা। শাড়ি পরার ভিডিও পোস্ট করতে প্রায় হাহাকার পড়ে গেলো নেটদুনিয়ায়।

সম্প্রতি আরো এক ছবিও পোস্ট করেছিলেন তিনি। যেখানে উন্মুক্ত বক্ষযুগলের উপর রাখা সামান্য কয়েক গাছা ফুল। সেই ফুলগুলোই দিয়েই তৈরি হয়েছে ঋতুপর্ণার পোশাক। শাড়ির মধ্যে সাবেকিয়ানার ছোঁয়া। সাদা শাড়ি সঙ্গে রঙে বেরঙের সুতোর কাজ, তবে শরীরে নেই ব্লাউজ। সেই ব্লাউজের জায়গায় এসেছে ফুলের তোরা। এমনকি ঋতুপর্ণা শুয়েও আছেন ফুলেনর বিছানায়। ছবি দেখেই নেটিজেনের মাথায় হাত। সকলের প্রায় ঘাম ঝড়তে শুরু করেছে এই ছবি দেখে।

এমন সাজের জন্যই কি গ্লোবাল ওয়ার্মিং হয়ে চলেছে। এই ধরণের মজার কমেন্ট করেছে ভক্তরা। ঋতুপর্ণার রূপ এবং যৌবন, দুটোই যে একেবারে ছক্কা হাঁকাচ্ছে সোশ্যাল মিডিয়ায়, তা আর বুঝতে বাকি নেই।

ভিডিও দেখতে ক্লিক করুন এখানে: অভিনেত্রীর শাড়ি পড়ার ভিডিও ভাইরাল

ঋতুপর্ণা সেনগুপ্ত (জন্ম: ৭ নভেম্বর ১৯৭১) একজন বিশিষ্ট ভারতীয় বাঙালি অভিনেত্রী। ১৯৮৯ সাল থেকে বাংলা চলচ্চিত্র শিল্পের সঙ্গে জড়িত ঋতুপর্ণা অভিনয় করেছেন একাধিক বাংলাদেশী ও হিন্দি চলচ্চিত্রেও। বাণিজ্যিক ও শৈল্পিক – উভয় ধারার সিনেমাতে তার সুদক্ষ অভিনয় তাকে এনে দিয়েছে একাধিক পুরস্কার। অভিনয়ের পাশাপাশি বিভিন্ন সমাজসেবামূলক কাজ ও লেখালিখির সঙ্গেও জড়িত ঋতুপর্ণা।

কুশল চক্রবর্তীর বিপরীতে বাংলা ধারাবাহিক শ্বেত কপোত (১৯৮৯) দিয়ে ঋতুপর্ণা সেনগুপ্তর অভিনয় জীবনের শুরু। তার অভিনীত প্রথম ছবি প্রভাত রায়ের জাতীয় পুরস্কার প্রাপ্ত বাংলা ছবি শ্বেতপাথরের থালা (১৯৯২)। তার অভিনীত প্রথম বাংলাদেশী ছবি স্বামী কেন আসামী (১৯৯৭)।